বাংলাদেশ থেকে পলায়নকালে দেড় শতাধিক রোহিঙ্গাকে আটক করেছে মিয়ানমার 

বাংলাদেশ

বাংলাদেশে অবস্থিত রোহিঙ্গা আশ্রয়কেন্দ্র থেকে নৌযানযোগে পলায়নকালে ১৫৪ জন রোহিঙ্গাকে আটক করেছেন মিয়ানমারের ক্ষমতাসীন জান্তাবাহিনী। মিয়ানমারের জান্তাবাহিনী স্থানীয় সময় গতকাল বুধবার মিয়ানমারের সমুদ্রসীমায় তাদের আটক করে। থাইল্যান্ডভিত্তিক মিয়ানমারের সংবাদমাধ্যম ইরাবতীর এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা গেছে।

মিয়ানমারের জান্তাবাহিনী জানিয়েছে, দেশটির নৌবাহিনীর সদস্যরা দুটি নৌযানযোগে পলায়নকালে ১৫৪ জনকে আটক করেছে। আটককৃতদের নৌবাহিনীর একটি জাহাজে রাখা হয়েছে। আটককৃতদের মধ্যে ১০৬ জন পুরুষ এবং ৪৮ জন নারী। জান্তাবাহিনীর তরফ থেকে জানানো হয়েছে, ওই ১৫৪ জন ইন্দোনেশিয়ার উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছিল।

এদিকে, মিয়ানমারের জান্তাবিরোধী বেসামরিক রাজনীতিবিদদের নেতৃত্বে গঠিত জাতীয় ঐক্যের সরকার বা এনইউজে জানিয়েছে, মিয়ানমারের নিকটবর্তী থাইল্যান্ড উপকূলের কাছে রোহিঙ্গা নাগরিক বহনকারী একটি নৌকা স্রোতের তোড়ে ভেসে গেছে। এনইউজের মানবাধিকার বিষয়ক উপদেষ্টা উ অউঙ কায়ু মোয়ি বলেছেন, ‘একটি নৌকা থাই উপকূলে ভেসে যায় এবং নৌকাটিতে খাবার ও পানি ফুরিয়ে গেলে ছয়জনের মৃত্যু হয়।’ তিনি এক টুইটে বলেছেন, প্রায় এক সপ্তাহ ধরে অন্তত ১৮০ জন রোহিঙ্গা নিয়ে মালয়েশিয়ার উদ্দেশে ভেসে চলেছে।

এর আগে, গত ২৮ নভেম্বর দেশ ত্যাগের চেষ্টাকালে ইয়াংগুনের হিলেগু শহর থেকে ৬৮ জন রোহিঙ্গাকে গ্রেপ্তার করে জান্তা পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে শিশু এবং নারীও ছিল। হেলেগু পুলিশের বরাত দিয়ে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে—রাজ্যের বুথিডং টাউনশিপ থেকে আটককৃত ওই ব্যক্তিদের রোহিঙ্গা হিসেবে শনাক্ত হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *