টুইটারে পোল খুলে ইলন মাস্ক বললেন, হেরে গেলে সিইওর পদ ছাড়বেন তিনি

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

টুইটারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার পদে তাঁর থাকা উচিত কিনা তা জানতে চেয়ে টুইটারে পোল (অনলাইন ভোট) খুলেছেন ইলন মাস্ক। পোল পোস্টে তিনি বলেছেন, ‘আমি কি প্রধান নির্বাহীর পদ থেকে সরে দাঁড়াব? ভোটের ফলাফল যেটাই হোক, আমি তা মেনে নেব।’ 

মার্কিন সম্প্রচারমাধ্যম সিএনএন জানিয়েছে, অনলাইন ভোটে হেরে গেলে টুইটারের প্রধান নির্বাহীর পদ থেকে সরে দাঁড়াবেন বলে জানিয়েছেন ইলন মাস্ক। স্থানীয় সময় রোববার সন্ধ্যায় তিনি এ ভোটের আয়োজন করেন। সিএনএনের প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত সেখানে মাস্কের পক্ষে ভোট পড়েছে ৫৮ শতাংশ এবং বিপরীতে ভোট পড়েছে ৪২ শতাংশ। 

বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ ধনী ও বৈদ্যুতিক গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান টেসলার মালিক ইলন মাস্ক গত অক্টোবরে ৪ হাজার ৪০০ কোটি ডলারে টুইটার কিনে নেন। এরপর নিজেকে টুইটারের প্রধান নির্বাহী হিসেবে ঘোষণা করেন। দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই তিনি কর্মী ছাঁটাই থেকে শুরু করে নানা ধরনের পদক্ষেপ নিয়ে সমালোচনার জন্ম দেন। সম্প্রতি বেশ কয়েকজন আন্তর্জাতিক সাংবাদিকের টুইটার অ্যাকাউন্ট স্থগিত করে নতুন করে সমালোচনার মুখে পড়েছেন ইলন মাস্ক। 

ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, সাংবাদিকদের টুইটার অ্যাকাউন্ট স্থগিত করায় ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও জাতিসংঘ ইলন মাস্কের এমন পদক্ষেপের নিন্দা জানিয়েছে। এমনকি ইউই টুইটারের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করবে বলেও হুমকি দিয়েছে। অন্যদিকে জাতিসংঘ গত শুক্রবার এক টুইটার পোস্টে বলেছে, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা কোনো খেলনা বিষয় নয়।’ 

জাতিসংঘের গ্লোবাল কমিউনিকেশনস সেক্রেটারি জেনারেল মেলিসা ফ্লেমিং বলেন, সাংবাদিকদের টুইটারে ‘যথেচ্ছভাবে’ স্থগিত করার খবরে তিনি খুবই বিরক্ত। ‘গণমাধ্যমের স্বাধীনতা কোনো খেলনা বিষয় নয়। মুক্ত গণমাধ্যম গণতান্ত্রিক সমাজের মূলভিত্তি এবং ক্ষতিকারক ও বিভ্রান্তিকর তথ্যের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের প্রধান হাতিয়ার।’ 

এ ছাড়া ইইউ কমিশনার ভেরা জোরোভা ইউরোপের নতুন ডিজিটাল সেবা আইনের অধীনে টুইটারের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের হুমকি দিয়েছেন। এ আইনে মিডিয়ার স্বাধীনতা এবং মৌলিক অধিকারকে সম্মানের কথা বলা হয়েছে। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *