‘মায়ের কান্না’ কখনো যোগাযোগ করেনি: মার্কিন দূতাবাসের বিবৃতি

বাংলাদেশ ব্রেকিং নিউজ

নিরাপত্তাজনিত উদ্বেগ দেখা দেওয়ায় মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার হাসকে গত ১৪ ডিসেম্বর ‘মায়ের ডাক’ সংগঠনের পূর্বনির্ধারিত অনুষ্ঠান ত্যাগ করতে হয়েছিল। ঢাকায় মার্কিন দূতাবাসের মুখপাত্র রোববার এক বিবৃতিতে এ দাবি করেছেন।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, রাষ্ট্রদূতের উপস্থিতির সময় ‘প্রতিবাদকারীরা’ অনুষ্ঠানটির বিঘ্ন ঘটিয়েছে। তারা অনুষ্ঠানস্থলে ঢুকতে চেয়েছে। অন্য প্রতিবাদকারীরা রাষ্ট্রদূতের গাড়ি ঘিরে ধরেছিল। দূতাবাস বিষয়টি ঢাকায় বাংলাদেশ সরকার এবং ওয়াশিংটনে বাংলাদেশ দূতাবাসকে জানিয়েছে।

মানবাধিকারকে মার্কিন পররাষ্ট্র নীতির অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হিসেবে অভিহিত করে বিবৃতিতে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস মানবাধিকার লঙ্ঘনের সকল অভিযোগ গুরুত্বের সঙ্গে গ্রহণ করে থাকে এবং নিয়মিত বিভিন্ন সংগঠনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে থাকে।

বিগত কয়েক বছরে ‘মায়ের কান্না’ নামক সংগঠনের কাছ থেকে দূতাবাসে কোনোরকম যোগাযোগ করা হয়নি বলে দূতাবাস দাবি করেছে। 

রাষ্ট্রদূত হাস গত ১৪ ডিসেম্বর সকালে ‘মায়ের ডাক’ নামক সংগঠনের আয়োজনে ঢাকার শাহীনবাগে নিখোঁজ বিএনপি নেতা সাজেদুল ইসলাম সুমনের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। ‘নিরাপত্তা উদ্বেগের কারণে’ তিনি তড়িঘড়ি সাক্ষাৎ শেষ করে অনুষ্ঠানস্থল ত্যাগ করেন।

একই দিন বিকেলে তিনি জরুরি ভিত্তিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে ‘নিরাপত্তাজনিত অনিশ্চয়তার’ কথা জানিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন বলে মন্ত্রী সাংবাদিকদের জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *