চলছে টানা শৈত্যপ্রবাহ, কাঁপছে পঞ্চগড়

বাংলাদেশ

শীতপ্রবণ এলাকা হিসেবে পরিচিত উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ে চতুর্থ দিনের মতো টানা মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে চলেছে। সোমবার সকালে সর্বনিম্ন ৯ ডিগ্রি সেলিসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করেছে তেঁতুলিয়া আবহাওয়া অফিস। রোববার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এর আগে শুক্রবার সর্বনিম্ন ৮ দশমিক ৭ এবং শনিবারও একই তাপমাত্রা রেকর্ড করে তেঁতুলিয়া আবহাওয়া অফিস। চার দিন ধরে টানা শৈত্যপ্রবাহে উত্তরের এই জেলার জনজীবনে দেখা দিয়েছে দুর্ভোগ।

তবে সপ্তাহজুড়ে প্রতিদিন বিকেল থেকে পরদিন দুপুর পর্যন্ত ঘন কুয়াশায় ঢেকে থাকলেও দুপুরের পর ঝলমলে রোদে কিছুটা স্বস্তি দেখা দেয়। আর বিকেল থেকে উত্তরের হিমশীতল বাতাসে কনকনে শীত অনুভূত হয়। 

সোমবার ঘন কুয়াশায় সকাল ১০টার পরও হেডলাইট জ্বালিয়ে যানবাহন চলাচল করতে দেখা যায়। কনকনে শীত ও ঘন কুয়াশায় ছিন্নমূল আর খেটে খাওয়া মানুষের দুর্ভোগ বেড়েছে, আয় কমে গেছে ভ্যান-রিকশা চালকদের। কনকনে শীতে কাবু গৃহপালিত গাবাদি পশুসহ প্রাণিকুল। স্থানীয়রা চট অথবা গরম কাপড় দিয়ে গরু ছাগলের শীত নিবারণের চেষ্টা করছেন।

আবহাওয়া অফিসের কর্মকর্তারা জানান, সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৮ থেকে ১০ এর মধ্যে থাকলে সেই এলাকায় মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে চলে। চলমান শৈত্যপ্রবাহের কারণে কনকনে শীতে কৃষি শ্রমিক ও পাথর শ্রমিকদের কষ্ট বেড়েছে। এসব শ্রমিকদের প্রতিদিন সকালেই কাজে যেতে হয়। কিন্তু সকালে ঠান্ডার কারণে কাজ করা যাচ্ছে না। স্বাভাবিক জনজীবনেও স্থবিরতা দেখা দিয়েছে।

তেঁতুলিয়া আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. রাসেল শাহ সমকালকে বলেন, সোমবার সকালে সর্বনিম্ন ৯ ডিগ্রি সেলিসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করেছে তেঁতুলিয়া আবহাওয়া অফিস। এই অবস্থা আরও কয়েক দিন থাকতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *