হালান্ডের হ্যাটট্রিকে সিটির বড় জয়

ক্রীড়া জগত ফুটবল

ম্যাচ শুরুর আগে খেলোয়াড়দের মাঝে আরও ক্ষুধার্ত ভাব দেখতে চেয়েছিলেন পেপ গার্দিওলা। গতকাল তাঁর ডাকে সাড়াও দিয়েছেন শিষ্যরা।

বিশেষ করে আর্লিং হালান্ড। নরওয়েজীয় স্ট্রাইকারের হ্যাটট্রিকে উলভসের বিপক্ষে ৩-০ গোলের বড় জয় পেয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি। স্বাগতিকের হয়ে চলতি মৌসুমে চতুর্থ হ্যাটট্রিক করলেন তিনি।

ইতিহাদে শুরু থেকেই প্রতিপক্ষদের ওপর একের পর এক আক্রমণ করতে থাকেন সিটির ফুটবলাররা। কিন্তু গোলবারের নিচে প্রাচীর হয়ে দাঁড়ান গোলরক্ষক জোসে সা। তাঁর দৃঢ়তায় নিজেদের মাঠে বেশ কয়েকটি গোলের সুযোগ তৈরি করলেও ৩৯ মিনিটে পর্যন্ত গোলশূন্য থাকতে হয় সিটিকে। এ ছাড়া নিজেরাও বেশকটি শট ঠিকমতো গোলবারের রাখতে পারেননি স্বাগতিকদের আক্রমণভাগের ফুটবলাররা।

তবে বিরতিতে যাওয়ার ৫ মিনিট আগে দলকে লিড এনে দেন হালান্ড। ৪০ মিনিটে কেভিন ডি ব্রুইনার পাসে হেডে গোল করেন তিনি। গোলটি ছিল এ মৌসুমের ২৩ তম। গত মৌসুমে সমান গোল নিয়ে যৌথভাবে গোল্ডেন বুট জিতেছিলেন মোহাম্মদ সালাহ ও সন হিউং-মিন। ফিরতি মিনিটে পেনাল্টির আবেদন করলে ভিএআরে চেক করেও পেনাল্টি পায়নি সিটি।

দ্বিতীয়ার্ধে নেমে ৪ মিনিটের মধ্যে জোড়া গোল করে হ্যাটট্রিকপূর্ণ করেন হালান্ড। ৫০ মিনিটে নিজের ও দলের দ্বিতীয় গোলটি করেন পেনাল্টিতে। আর ৫৪ মিনিটের গোলকে বলা চলে উপহার হিসেবে পেয়েছেন তিনি। ভুলবশত রিয়াদ মাহরেজকে পাস দিয়ে বসেন প্রতিপক্ষের গোলরক্ষক। সেই পাসটি ঠান্ডা মাথায় নাম্বার নাইনের দিকে বাড়িয়ে দেন তিনি। মুখে তুলে দেওয়া পাসকে জালে জড়াতে ভুল করেননি হালান্ড।

এই গোলে প্রিমিয়ার লিগে ২৫ তম গোল করেছেন হালান্ড। আর সব মিলিয়ে ৩১ তম গোল করলেন তিনি। প্রিমিয়ার লিগ ইতিহাসে ৪টি হ্যাটট্রিকের রেকর্ড গড়লেন সবচেয়ে কম ম্যাচ খেলে। মাত্র ১৯ খেলেছেন তিনি। ৬৫ ম্যাচ খেলে আগের রেকর্ডটি করেছিলেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের কিংবদন্তি রুদ ফন নিস্টলরয়। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *