ডেনমার্কে মসজিদ ও তুর্কি দূতাবাসের সামনে পবিত্র কুরআনে আগুন

আন্তর্জাতিক

এবার ডেনমার্কের রাজধানী কোপেনহেগেনের একটি মসজিদ ও তুরস্কের দূতাবাসের সামনে পবিত্র ‍কুরআন পোড়ানোর ঘটনা ঘটেছে। গতকাল শুক্রবার ডেনমার্কে পবিত্র কুরআন পোড়ানো হয়। এর আগে ইউরোপেরই অপর দেশ সুইডেনের রাজধানী স্টকহোমে উগ্র ডানপন্থীদের পবিত্র কুরআন পোড়ানো হয়। খবর: আলজাজিরা’র।

কোপেনহেগেনে পবিত্র কুরআন পোড়ানোর ঘটনায় যুক্ত ছিলেন রাসমুস পালুডান নামের এক ব্যক্তি। তিনি ডেনমার্কের কট্টর ডানপন্থী রাজনৈতিক দল হার্ড লাইনের নেতা। ২১ জানুয়ারি সুইডেনের রাজধানী স্টকহোমে তুরস্কের দূতাবাসের সামনে পবিত্র কুরআন পোড়ান তিনি। পালুডান সুইডেন ও ডেনমার্কের যৌথ নাগরিক।

পালুডান গত বছর এপ্রিলে ঘোষণা দেন, পবিত্র রমজান মাসে তিনি বিভিন্ন স্থানে ঘুরে ঘুরে পবিত্র কুরআন পোড়াবেন। তাঁর এ ঘোষণায় সুইডেনজুড়ে দাঙ্গা শুরু হয়েছিল। সেই ঘোষণা মোতাবেক তিনি প্রথমে সুইডেনে, এরপর ডেনমার্কে এ কাণ্ড ঘটালেন। ইউক্রেনে রুশ হামলার শুরুর পর ন্যাটোয় যুক্ত হওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করেছে সুইডেন। তবে এ উদ্যোগ বাস্তবায়নে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে তুরস্ক। এর আগে সুইডেনে পবিত্র কুরআন পোড়ানোর ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছে তুরস্ক।

এ ছাড়া বাংলাদেশ, সৌদি আরব, জর্ডান ও কুয়েতের মতো কয়েকটি মুসলিম দেশও সুইডেনে পবিত্র কুরআন পোড়ানোর এ ঘটনার নিন্দা জানিয়েছে। বাংলাদেশে বিক্ষোভও হয়েছে এ ঘটনার প্রতিবাদে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *