বিপিএলের শেষে এসেও বিকল্প বিদেশি খুঁজছে দলগুলো

ক্রিকেট ক্রীড়া জগত

তারকা শূন্যতার বিপিএলে আলোর ঝলকানি হয়ে ছিলেন পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা। ঢাকায় টুর্নামেন্টের তৃতীয় ও শেষ পর্বে এসে সেই পাকিস্তানি ক্রিকেটারদেরও ছাড়তে বাধ্য হচ্ছে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) নির্দেশ মেনে এরই মধ্যে বাংলাদেশ ছেড়েছেন বেশির ভাগ পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা। 

আগামী ১৩ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হচ্ছে পিএসএলের অষ্টম আসর। টুর্নামেন্ট ফ্র্যাঞ্চাইজিদের চাওয়া মেনে পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের ডেকে পাঠিয়েছে পিসিবি। বিপিএলের শেষ দিকে এসেও তাই বিকল্প খুঁজতে হচ্ছে বিপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর।

টেবিল টপার সিলেট স্ট্রাইকার্স ছেড়ে যাওয়া দুই পাকিস্তানি মোহাম্মদ আমির ও ইমাদ ওয়াসিমের শূন্যতা দলকে ভালোই ভোগাতে পারে। যদিও এটা নিয়ে খুব বেশি চিন্তিত নন সিলেট কোচ রাজিন সালেহ। গতকাল দলের অনুশীলন শেষে তিনি বলেছেন, ‘আমরা এতটা উদ্বিগ্ন নই। আমাদের স্থানীয় যারা আছে, তারা অনেক অভিজ্ঞ। নাবিল সামাদ আছে, নাজমুল ইসলাম অপু আছে, তারা বিগত দিনে ভালো করে এসেছে। দুর্ভাগ্য, তারা খেলতে পারেনি। যেহেতু ইমাদ চলে গেছেন, তার জায়গা তারা পূরণ করতে পারবেন।’

আমির ও ইমাদের জায়গায় সাবেক পাকিস্তানি পেসার মোহাম্মদ ইরফান ও আফগান অলরাউন্ডার গুলবাদিন নায়িব সিলেটের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন। ইরফান পিএসএলে দল না পেলেও বিপিএল খেলার পূর্ব অভিজ্ঞতা থাকায় তাঁকে নিয়ে আশাবাদী রাজিন। বিপিএল ছেড়েছেন আজ দিনের প্রথম ম্যাচে মাঠে নামার অপেক্ষায় থাকা খুলনা টাইগার্সের সেরা একাদশের দুই পাকিস্তানি ব্যাটার আজম খান ও পেসার আমাদ বাট। সিলেট পর্বের মাঝেই দল ছাড়েন খুলনার আরেক পাকিস্তানি পেসার ওয়াহাব রিয়াজ। তাঁর জায়গায় অবশ্য ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডার মার্ক ডেয়াল এসেছেন। ৯ ম্যাচে দুই জয় নিয়ে টেবিলের ছয়ে আছে দলটি। এমনিতে খুলনার শেষ চারে যাওয়া কঠিন। আজ তাদের প্রতিপক্ষ টেবিলের দুইয়ে থাকা ফরচুন বরিশাল।

স্বস্তিতে নেই বরিশালও। আজ খেলেই বিপিএল ছেড়ে যাবেন মিডলঅর্ডার ব্যাটার ইফতিখার আহমেদ। সিলেট পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে ঢাকা ডমিনেটরসের কাছে হেরে সাকিব আল হাসানের দল সেরা দুইয়ে কিছুটা কঠিন করে ফেলেছে। সমান ১২ পয়েন্ট নিয়ে তাদের ঘাড়ে নিশ্বাস ফেলছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস। কুমিল্লা অবশ্য পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত পাওয়ার আশা করছে। দলীয় সূত্রে জানা গেছে, নাসিম শাহ ও খুশদিল শাহ গতকাল পাকিস্তানে ফিরে গেছেন। দুজনই পেশোয়ার জালমি ও কোয়েট্টা গ্লাডিয়েটরসের মধ্যকার প্রদর্শনী ম্যাচে কোয়েট্টার দলে আছেন। ৫ ফেব্রুয়ারি ম্যাচ খেলে তাঁরা আবার দলের সঙ্গে যোগ দেবেন। কোয়েট্টার হয়ে খেলবেন বরিশালের ইফতিখারও।

কুমিল্লা এখনো কয়েকজন বিদেশি ক্রিকেটারের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে। সেরা চারে গেলে নিশ্চিতভাবেই তারা পাকিস্তানিদের পাবে না। এর মধ্যে তাই সুনীল নারাইন ও আন্দ্রে রাসেলকে নিশ্চিত করেছেন তাঁরা। ৬ ফেব্রুয়ারির মধ্যে দলের সঙ্গে যোগ দেওয়ার কথা তাঁদের। রংপুরও হারিস রউফ-শোয়েব মালিকদের ৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত পাওয়ার কথা নিশ্চিত করেছে। আজ দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ ঢাকা। ৮ ম্যাচে ৫ জয় নিয়ে টেবিলের চারে আছে রংপুর। শেষ চারের টিকিট পেতে আজ ঢাকার বিপক্ষে জয়ের বিকল্প নেই নুরুল হাসান সোহানের দলের। কাগজে-কলমের আশা বাঁচিয়ে রাখতে জয় চাই ঢাকারও।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *