১৫ শতাংশ কর্মী ছাঁটাই করছে জুম

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

বিশ্বব্যাপী প্রায় ১ হাজার ৩০০ কর্মী ছাঁটাইয়ের কথা জানিয়েছে জনপ্রিয় ভিডিও কনফারেন্সিং অ্যাপ জুম। যা কোম্পানিটির প্রায় ১৫ শতাংশ।  যোগাযোগ প্রযুক্তি–বিষয়ক প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) এরিক ইউয়ান গতকাল মঙ্গলবার এই ঘোষণা দিয়েছেন। খবর সিএনবিসি ও এনডিটিভির। 

জুমের দাপ্তরিক ব্লগে এরিক ইউয়ান লিখেছেন, কর্মীর সংখ্যা কমিয়ে আনার পরিকল্পনা করেছে জুম। এজন্য কঠোর পরিশ্রমী ও মেধাবী হওয়া সত্ত্বেও আমাদের প্রায় ১ হাজার ৩০০ সহকর্মীকে বিদায় বলতে হচ্ছে। চাকরিচ্যুত কর্মীদের শিগগিরই ই–মেইলে তা জানিয়ে দেওয়া হবে। 

এরিক ইউয়ান আরও জানিয়েছেন, যুক্তরাষ্ট্রে কর্মরত জুমের কর্মীরা তাদের চাকরি হারানোর বার্তাটি পরবর্তী ৩০ মিনিটের মধ্যে ই–মেইলে পেয়ে যাবেন। আর অন্যান্য দেশে কর্মরত কর্মীদের এই বার্তা সেখানকার নিয়ম মেনে দেওয়া হবে। 

জুম মিটিংয়ে হ্যাকারদের হানা, দ্রুত হালনাগাদ সংস্করণ ব্যবহারের পরামর্শ
জুমে তিনটি নিরাপত্তা ত্রুটির সন্ধান মিলেছে।

২০১১ সালে জুম প্রতিষ্ঠা করেন এরিক ইউয়ান। করোনার আগে সেবাটি মানুষের কাছে অপরিচিতই ছিল। করোনা মহামারির সময় টানা লকডাউন ও হোম অফিসের সুবাদে জনপ্রিয় হয়ে ওঠে সেবাটি। জুমের জনপ্রিয়তার জেরে এরিক এখন বিশ্বের ১৩৩ নম্বর ধনী। ফোর্বসের হিসাব অনুযায়ী, তার মোট সম্পদের পরিমাণ ১ হাজার ৩২০ কোটি ডলার। 

তবে জুমের সিইও হয়েও এরিক ইউয়ান সরাসরি অফিস করা, বৈঠক করার পক্ষে। তিনি চান জুমের কর্মীরা করোনার আগের মতো মুখোমুখি মিটিংয়ে ফিরে যাক। সপ্তাহে অন্তত দুই দিনের জন্য হলেও যেন তারা অফিসে গিয়ে কাজ করেন। কেননা এরিক ইউয়ান নিজেও জুমে একের পর এক বৈঠক করে ক্লান্ত হয়ে পড়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *