রাজনৈতিক জটিলতায় সোহমের নতুন সিনেমা

বিনোদন

ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে গতকাল পশ্চিমবঙ্গের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে সায়ন্তন ঘোষাল পরিচালিত সিনেমা ‘লাল সুটকেসটা দেখেছেন?’। অভিনয়ের পাশাপাশি সিনেমাটি প্রযোজনা করেছেন সোহম চক্রবর্তী।

ভালোবাসা দিবস সামনে রেখে সিনেমাটি মুক্তি পেলেও স্বস্তিতে নেই সোহম। কারণ, মুক্তির মাত্র কয়েক ঘণ্টা আগে মিলেছে সেন্সর সার্টিফিকেট। তাই বেশিসংখ্যক হলে মুক্তি দেওয়া সম্ভব হয়নি। এমনকি কলকাতার স্বনামধন্য সিনেমা হল নন্দনে মুক্তি পায়নি সিনেমাটি। এ নিয়ে সেন্সর বোর্ডের ওপর নাখোশ সোহম। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘সেন্সর বোর্ডের কাছে সঠিক সময়ে জমা দেওয়া হয়েছিল সিনেমাটি। প্রথমবার দেখার পর তারা জানিয়েছিল রাধে রাধে বলা যাবে না, কৃষ্ণের নাম নেওয়া যাবে না। ওভারডোজ় এবং হ্যালুসিনেশন শব্দ দুটি ব্যবহার করা যাবে না। তাদের কথামতো আমরা সব পরিবর্তন করেছি। তারপরেও ছাড়পত্র পেতে মুক্তির আগের দিন দুপুর গড়িয়ে গেল। এ ধরনের হেনস্তার কী মানে? অনেক হল হাতছাড়া হয়ে গেল। এমনকি নন্দনেও প্রথম সপ্তাহে দেখাতে পারছি না আমরা। এর কারণে ব্যবসায়িক যে ক্ষতি হবে, তার দায় কে নেবে?’

সোহম আরও বলেন, ‘আমার মনে হয় রাজনীতির কারণেই এই হেনস্তা করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় তথ্য সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের ভেতর থেকে খবর পেয়েছি যে সোহম চক্রবর্তী যেহেতু তৃণমূল বিধায়ক, তাই এই সিনেমার মুক্তি যেন আটকে দেওয়া হয়।’

সিনেমার উন্নয়নে রাজনীতিকে দূরে রাখার পরামর্শ দিয়েছেন সোহাম। তিনি বলেন, ‘সিনেমাকে রাজনীতির ঊর্ধ্বে রাখা অত্যন্ত জরুরি। আমার এ সিনেমায় এমন অভিনেতাও কাজ করেছেন যাঁরা কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। চরিত্রের প্রয়োজনে তাঁদের নিতে দ্বিধা করিনি। বাংলা সিনেমাকে বাঁচাতে আমরা যদি একজোট না হই, তাহলে টলিউডের ক্ষতি হবে।’

‘লাল সুটকেসটা দেখেছেন?’ সিনেমায় সোহমের বিপরীতে রয়েছেন সায়নী ঘোষ। একটি রাত কীভাবে বদলে দেয় দুটি মানুষের জীবন, তা-ই উঠে আসবে গল্পে। সোহম-সায়নীর সঙ্গে অন্যান্য চরিত্রে রয়েছেন সৌরভ চক্রবর্তী, প্রদীপ ধর প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *