ক্রিকেটকে বিদায় জানালেন ইংল্যান্ডের বিশ্বকাপ জয়ী তারকা

ক্রিকেট ক্রীড়া জগত

ক্রিকেটের আবিষ্কারক বা জন্মদাতা বলা হয়ে থাকে ইংল্যান্ডকে। ১৬০০ শতাব্দীতে দক্ষিণ-পূর্ব ইংল্যান্ডে প্রথম ব্যাটে-বলের খেলার প্রচলন হয়। 

১৯৭৫ সালে প্রথম শুরু হয় ক্রিকেট বিশ্বকাপ। সবশেষ ২০১৯ সালের বিশ্বকাপের আগে রেকর্ড তিনবার ফাইনালে খেলেও হেরে যায় ইংল্যান্ড। তবে ২০১৯ সালে ঘরের মাঠে আয়োজিত বিশ্বকাপে ইয়ন মর্গানের নেতৃত্বে বিশ্বকাপ জয়ের খরা কাটায় ইংল্যান্ড। 

ইংল্যান্ডকে বিশ্বকাপ ট্রফি উপহার দেওয়া সেই সফল অধিনায়ক ক্রিকেটকে বিদায় বলে দিয়েছেন সোমবার। 

সাম্প্রতিক সময়ে পারফরম্যান্সে ধারাবাহিকতার অভাবে ক্রিকেটকেই বিদায় বলে দিলেন মরগান। 

সোমবার এক বিবৃতিতে ৩৬ বছর বয়সি মরগান বলেন, অত্যন্ত গর্বের সঙ্গে আমি সব ধরনের ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দিচ্ছি। অনেক চিন্তা-ভাবনার পর, আমার মনে হয়েছে এই খেলা থেকে সরে আসার এটাই সঠিক সময়; যে খেলাটি আমাকে বছরের পর বছর ধরে অনেক কিছু দিয়েছে।

ইংল্যান্ডের হয়ে ২৪৮ ওয়ানডে, ১৬ টেস্ট আর ১১৫টি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলে ১৬টি সেঞ্চুরির সাহায্যে ১০ হাজার ৮৫৯ রান করেন মরগান। 

তিনি বলেন, মিডলসেক্সে যোগ দেওয়ার জন্য ২০০৫ সালে ইংল্যান্ডে চলে যাওয়া থেকে একেবারে শেষে এসএটোয়েন্টিতে পার্ল রয়্যালসের হয়ে খেলা- প্রতিটি মুহূর্ত আমি উপভোগ করেছি।

খেলোয়াড় হিসেবে ক্রিকেটকে বিদায় জানালেও খেলাটির সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকবেন মরগান। 

তিনি বলেন, যদিও আমি আমার খেলোয়াড়ি ক্যারিয়ারের ইতি টানছি, তবে আমি এ খেলার সঙ্গে জড়িত থাকব। একজন ধারাভাষ্যকার ও বিশ্লেষক হিসেবে আন্তর্জাতিক ও ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্টে সম্প্রচারকারীদের সঙ্গে কাজ করব।

মরগান আরও বলেন, ক্যারিয়ারজুড়ে এই ক্লাব ও খেলাটির জন্য ওয়েন যা করেছে এজন্য মিডলসেক্স ক্রিকেট তাকে ধন্যবাদ জানাতে চায়। আমরা তার সাফল্যে ভূমিকা রাখতে পেরে অত্যন্ত গর্বিত। মিডিয়াতে তার ভবিষ্যত ক্যারিয়ারের জন্য সাফল্য কামনা করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *