‘আমাকে সাইজ করার চেষ্টা করলে নিজেরাই সাইজ হয়ে যাবেন’

বাংলাদেশ

সরকারকে উদ্দেশে করে ১৪ দলীয় জোটের শরীক বাংলাদেশ তরিকত ফেড়ারেশনের চেয়ারম্যান সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী বলেছেন, আমার মুখ খোলাবেন না। আমি মুখ খুললে আপনাদের অসুবিধা হয়ে যাবে। আমি আপনাদের (আওয়ামী লীগ) সঙ্গেই আছি। আমাকে সাইজ করার চেষ্টা করলে নিজেরাই সাইজ হয়ে যাবেন।

গত সোমবার রাতে চট্টগ্রামের ফটিকছড়িতে শাহ সুফী সৈয়দ শফিউল বশর (ক.) মাইজভান্ডারীর খোশরোজ শরীফ উপলক্ষে আয়োজিত ওয়াজ ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

নজিবুল বশর মাইজভান্ডারীর দুই ছেলের বিরুদ্ধে প্রাইম ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্টের ৩৯ কোটি ৪০ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে সম্প্রতি মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। এ ঘটনায় বর্তমান সরকার ও দুদকের প্রতি কড়া হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন চট্টগ্রাম-২ আসনের এই সংসদ সদস্য।

নজিবুল বশর বলেন, আমি দুদকের বিরুদ্ধে রিট করবো। দুদকের বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ করবো। কারণ আমরা পরিষ্কার। আমি ও আমার ছেলের জন্য মাইজভান্ডার দরবার শরীফ কলঙ্কিত হবে। তার চেয়ে মরে যাওয়ায় ভালো।

দুদক মাইজভান্ডার শরীফ ও তরিকত বিরোধীদের এজেন্ডা বাস্তবায়নের চেষ্টা করছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

দুদক কর্মকর্তাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ৩৯ কোটি ৪০ লাখ টাকা ঋণ নিয়ে টাকা জমা দিয়ে দিলে কি আর ওই টাকা আত্মসাত থাকে? ওই মামলায় দুদক তথ্য গোপন করেছে। দুদক নজিবুল বশর মাইজভান্ডারীকে এখনো চেনেনি। এ ছাড়াও তিনি দুদক কমিশনার মোজাম্মেল হকের উদ্দেশেও কড়া হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

সরকারের সঙ্গে কোনো বিরোধ নেই জানিয়ে নজিবুল বশর বলেন, আমি ১৪ দলীয় জোটে আছি এবং থাকবো। ওরা এখনও নজিবুল বশর কী জিনিস, তা বুঝতে পারেনি। আমার জন্য অনেকে কথা বলবে। বিএনপিকে ঘরে ঢুকানো সম্ভব; কিন্তু নজিবুল বশর মাইজভান্ডারীকে না।

তিনি আরও বলেন, আমার সিট আমি ঠিক করি। সরকারও জানে। কওমী মাদ্রাসার সঙ্গে সরকারের গণ্ডগোল, আমি সরকারকে সহযোগিতা করেছি।

আগামী নির্বাচনেও চট্টগ্রাম-২ আসন থেকে এমপি নির্বাচিত হবেন বলে জানিয়েছেন নজিবুল বশর। তিনি বলেন, আমি তো ভেসে আসি নাই। মাইজভান্ডারের দিকে যারাই অসৎ উদ্দেশে হাত দিয়েছে, তাদের হাত পুেড় গেছে।

সরকারকে ইঙ্গিত করে নজিবুল বশর বলেন, আমার মুখ খোলাবেন না। আমি মুখ খুললে অসুবিধা হয়ে যাবে। আমি আপনাদের সঙ্গে আছি।

সৈয়দ হাবিবুল বশর মাইজভান্ডারীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওয়াজ ও দোয়া মাহফিলে আরও বক্তব্য দেন সৈয়দ মাহতাবুল বশর মাইজভান্ডারী ও সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারীর ছেলে ও দুদকের করা অর্থ আত্মসাৎ মামলার আসামি সৈয়দ তৈয়বুল বশর মাইজভান্ডারী।

প্রসঙ্গত, প্রাইম ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড থেকে ৩৯ কোটি ৪০ লাখ টাকা ঋণ নিয়ে আত্মসাৎ করার অভিযোগে বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশনের যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ তৈয়বুল বশর মাইজভান্ডারী ও তার ভাই সৈয়দ আফতাবুল বশর মাইজভান্ডারীসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুদক। গত ১৯ ফেব্রুয়ারি বিকেলে দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় ঢাকা-১ কমিশনের সহকারী পরিচালক সাইফুল ইসলাম বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *