শনিবার বিকেলের ট্রেলার: যা বললেন ফারুকী

বিনোদন

দেশে না হলেও বিদেশে ঠিকই মুক্তি পাচ্ছে জননন্দিত নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ‘শনিবার বিকেল’। যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার প্রেক্ষাগৃহে আগামী ১০ মার্চ থেকে দেখা যাবে সিনেমাটি।

ইতিমধ্যে এর ট্রেলারও প্রকাশ করেছেন এ নির্মাতা।

যেখানে এটি একটি নৃশংস হামলার ঘটনা হিসেবে স্পষ্টভাবে ফুটে উঠেনি। ট্রেলার প্রকাশ হওয়ার পর প্রশ্ন উঠেছে, নির্মাতা এতে কোনোকিছু দেখাননি। আর এই বিষয়ে কথা বলেছেন ফারুকী।

সম্প্রতি নিজের ফেসবুক ভেরিফায়েড পেজে এক স্ট্যাটাসে তিনি বলেন, তাহলে ঝেড়ে কাশাই ভালো। এই কয়দিনে দেশ ও দেশের বাইরে থেকে অনেক শুভানুধ্যায়ী চিঠি লিখেছেন। অনেকেই তাদের ভালো লাগা জানিয়েছেন। আবার অনেকে এটাও বলেছেন, ট্রেলারে কেন কোনো কিছুই দেখাইনি! ট্রেলার দেখে অনেকের কাছে মনে হয়েছে, খুব নিরাপদে বানানো একটা কিছু। এটা অস্বীকার করার কিছু নেই যে, ট্রেলারে আমরা গল্পের ইঙ্গিতবাহী বা হার্ড হিটিং সবকিছু অ্যাভয়েড করার চেষ্টা করেছি। আপনারা যদি এর পেছনের কারণটা খেয়াল করেন তাহলে আমাকে হয়তো বুঝতে পারবেন।

তিনি আরও লেখেন, শনিবার বিকেল তো ‘ডুব’ না যে শান্ত শীতল ট্রেলার হবে। এটা সম্ভবত আমার সবচেয়ে এনগেজিং এবং ইনটেনস ছবি। ছবিজুড়েই আমাদের পরিচয়, আবেগ, সংকট বিষয়ে নানা হার্ডহিটিং মোমেন্টস বা ডিবেট আছে। একজন দর্শক যখন পুরো ছবিটা এক বসায় দেখবে সে তখন পুরো ছবির কনটেক্সটে বিষয়-আশয়গুলো দেখবে। ছবির মূল সুর ও বক্তব্য বুঝতে পারবে। কিন্তু যখনই এখান থেকে একটা, ওখান থেকে একটা ডায়লগ এনে ট্রেলারে ব্যবহার করব, দর্শক বিভ্রান্ত হওয়ার গভীর সম্ভাবনা থেকে যাবে।

সবশেষ ফারুকী লেখেন, আমার শনিবার বিকেল ছবির দুটি সামান্য স্টিল ছবি নিয়ে যা হয়েছিল, তারপর কি এই ভুল বোঝাবুঝির রাস্তা ওপেন করা ঠিক হতো? মার্চের ১০ তারিখ ছবিটি রিলিজ হচ্ছে আমেরিকা এবং কানাডাতে। চলেন ছবিটা দেখি। তারপর বলার মতো অনেক কথাই থাকবে আমাদের। কথা হবে। কারণ কথাই তো বলতে চাই আমরা।

শনিবার বিকেল সিনেমায় অভিনয় করেছেন জাহিদ হাসান, নুসরাত ইমরোজ তিশা, মামুনুর রশিদ, ইরেশ যাকের, ইন্তেখাব দিনার, গাউসুল আলম শাওন, নাদের চৌধুরী, ভারতের পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়, প্যালেস্টাইনের ইয়াদ হুরানি প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *