কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আপত্তি, তবু হাজার কোটি টাকার ঋণ

অর্থনীতি

ওয়ান ব্যাংকে অনিয়ম

বাংলাদেশ ব্যাংকের নিয়োগ করা সমন্বয়কের লিখিত আপত্তি উপেক্ষা করে বেসরকারি ওয়ান ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের এক সভাতেই হাজার কোটি টাকার বেশি ঋণ অনুমোদন ও নবায়ন করা হয়েছে। অন্যদিকে, সমন্বয়ককে না জানিয়ে সরাসরি ১০টি স্মারক উপস্থাপন করা হয় পর্ষদ সভায়। নির্বাহী কমিটির বৈঠকেও বিভিন্ন সিদ্ধান্তের ক্ষেত্রে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পরামর্শ মানা হচ্ছে না। ব্যাংকটির সঙ্গে স্বাক্ষরিত সমঝোতা স্মারক অনুযায়ী সমন্বয়কের পরামর্শ মেনে চলার কথা। সম্প্রতি এসব অনিয়ম তুলে ধরে ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করেছেন ব্যাংকটিতে নিযুক্ত সমন্বয়ক ও বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক নূরুল আমীন।

সুশাসনের ঘাটতিসহ কয়েকটি কারণে গত ডিসেম্বরে ওয়ান ব্যাংককে ‘দুর্বল’ চিহ্নিত করে নিবিড় তদারকির জন্য সমন্বয়ক নিয়োগ দেয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক। পর্ষদ ও নির্বাহী কমিটির প্রতিটি সভার আগে ব্যাংক থেকে পাঠানো স্মারক পর্যালোচনা করে এমডি বরাবর নিজের মতামত ও পরামর্শ দেন সমন্বয়ক। সমন্বয়ক নিয়োগের পর পর্ষদের বৈঠক হয় গত ২৩ জানুয়ারি। এ সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষেত্রে সমন্বয়কের অনেক পরামর্শই ব্যাংকটি মানেনি।

বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক মেজবাউল হক সমকালকে বলেন, আর্থিক অবস্থার উন্নয়নে বিভিন্ন ব্যাংকে সমন্বয়ক নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। সমন্বয়ক তাঁর পর্যবেক্ষণ তুলে ধরে প্রতিবেদন দিচ্ছেন। কোনো ব্যাংক তা না মানলে সে বিষয়ে ব্যাখ্যা চাওয়া হবে। পরে দায়বদ্ধ করে প্রয়োজনে ব্যক্তিগত ও প্রাতিষ্ঠানিক জরিমানা করা হবে। এর পরও নিয়মের ব্যত্যয় করলে এমডিকে অপসারণ এবং পরিচালনা পর্ষদ ভেঙে দেওয়ার মতো সিদ্ধান্তও নেওয়া হতে পারে।

সমন্বয়কের প্রতিবেদনে বলা হয়, ওয়ান ব্যাংকের প্রিন্সিপাল শাখার গ্রাহক নোমান টেক্সটাইল মিলসের ৩১৮ কোটি টাকার ঋণ নবায়নে সমন্বয়কের পরামর্শ উপেক্ষা করা হয়। তাঁর পরামর্শ ছিল, বকেয়া ১৯ কোটি ৫৪ লাখ টাকা আদায় এবং ৭০ কোটি টাকার ওভার ড্রাফট (ওডি) সুবিধা ৫০ কোটি টাকায় নামিয়ে আনার আগের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করে গ্রাহকের ঋণ নবায়ন করতে হবে। তবে তা আমলে নেয়নি ব্যাংক।

ব্যাংকের গুলশান নর্থ শাখার গ্রাহক প্রসাধনী উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান রিমার্ক এইচবি লিমিটেডের ১৩ কোটি টাকার সম্পদ জামানতের বিপরীতে ৬৭ কোটি টাকার ঋণ দিয়েছে ব্যাংক। বন্ধকি সম্পত্তির অতিরিক্ত ঋণ না দেওয়ার পরামর্শ দেন সমন্বয়ক। তবে তা আমলে না নিয়ে কোনো শর্ত ছাড়াই ঋণটি অনুমোদন করা হয়।

এতে বলা হয়, উত্তরা শাখার গ্রাহক ডার্ড কম্পোজিট টেক্সটাইলে একটি সিন্ডিকেটেড ঋণ রয়েছে। ২০২১ সাল পর্যন্ত ফান্ডেড, নন-ফান্ডেড মিলে ওয়ান ব্যাংকে গ্রুপটির ঋণ ছিল ২৯৩ কোটি টাকা। বিপুল অঙ্কের ঋণের বিপরীতে বন্ধকি সম্পত্তিতে এখনও ব্যাংকের অধিকার প্রতিষ্ঠা হয়নি। অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য গ্রাহক এর আগে আটবার সময় নিয়েও তা করেননি। এখন আরও ছয় মাস সময় চাইলে তাতে আপত্তি জানান সমন্বয়ক। এ ছাড়া গ্রুপটির অপর প্রতিষ্ঠান দীপ্তা অ্যাপারেলসের ৫২ কোটি টাকার ঋণ বকেয়া রয়েছে। খেলাপি আছে ৯টি কিস্তি। বন্ধকি সম্পত্তিতে অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য গ্রাহকের দিকে তাকিয়ে না থেকে ব্যাংককে উদ্যোগী হওয়ার পরামর্শ দেন সমন্বয়ক। তবে তা না শুনে ৩০ জুলাই পর্যন্ত সময় দেওয়া হয়েছে।
এ ছাড়া ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ পিএলসির অনুকূলে ৩২৫ কোটি টাকার ঋণ নবায়নেও মানা হয়নি সমন্বয়কের পরামর্শ। বিপুল অঙ্কের এ ঋণের বিপরীতে যথাযথ জামানত সংরক্ষণ এবং ঋণের সর্বশেষ ‘শ্রেণিমান’ নিশ্চিত হওয়ার পরামর্শ দেন সমন্বয়ক। এসব আমলে না নিয়ে শর্ত ছাড়াই ঋণটি নবায়ন করে ব্যাংক।

সার্বিক বিষয়ে বক্তব্য জানতে ওয়ান ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মনজুর মফিজকে টেলিফোন করা হয়। না ধরলে প্রতিবেদকের পরিচয় দিয়ে এসএমএস করা হয়। এর পর তিনি এসএমএসের মাধ্যমে আলাপের বিষয়বস্তু জানতে চান। বিষয়বস্তু জানিয়ে তাঁকে ফিরতি এসএমএস দেওয়া হয়। এর পর আর কোনো জবাব পাওয়া যায়নি। পরে তিনি ফোনও ধরেননি।

আরও কিছু অসংগতি : ব্যাংকের নির্বাহী কমিটির ২৮৮তম সভায় কোনো ধরনের জামানত ছাড়াই এডিশন পাওয়ার বাংলাদেশ নামে একটি প্রতিষ্ঠানকে ২৫ কোটি টাকার ঋণ অনুমোদন করা হয়েছে। স্থাবর সম্পত্তি ছাড়া কেবল করপোরেট গ্যারান্টি ও ব্যক্তিগত গ্যারান্টির বিপরীতে এ ঋণকে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে মত দেন বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিনিধি। গুলশান শাখার গ্রাহক মেঘনা এডিবল অয়েল রিফাইনারির অনুকূলে ২৫০ কোটি টাকার ঋণ নবায়নের প্রস্তাব ছিল ওই সভায়। এ প্রস্তাব অনুমোদনের আগে আমদানি-পরবর্তী অর্থায়ন নীতিমালা ঠিকভাবে পরিপালন করতে বলা হয়। নীতিমালা পরিপালন করা হয়েছে কিনা, তা যাচাই করছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

গুলশান-১ শাখার গ্রাহক পূর্বাণী সিনথেটিক স্পিনিং ও পূর্বাণী ইয়ার্ন ডায়িংয়ের মাত্র ১ কোটি ১৭ লাখ টাকার সহায়ক জামানতের বিপরীতে ৫৮ কোটি টাকার ঋণ নবায়ন করেছে ব্যাংক। নারায়ণগঞ্জ শাখার গ্রাহক পিএন এন্টারপ্রাইজের মাত্র ১১ কোটি ১৮ লাখ টাকার জামানতের বিপরীতে ২৫ কোটি টাকা নবায়ন করা হয়েছে। উভয় ক্ষেত্রে পর্যাপ্ত জামানত নিশ্চিতের পরামর্শ দিয়েছেন সমন্বয়ক। বনানী শাখার ন্যাশনাল মলিমার ইন্ডাস্ট্রিজের ঋণ ২৪ কোটি টাকা থেকে বাড়িয়ে ২৭ কোটি টাকা করার আবেদন এসেছে। এ প্রতিষ্ঠানের আগের বকেয়া ২ কোটি ৮৯ লাখ টাকা সমন্বয়ের পর প্রস্তাব অনুমোদনের পরামর্শ দেন সমন্বয়ক। সমন্বয়কের এসব পরামর্শ যথাযথভাবে পরিপালন হচ্ছে কিনা, তা যাচাই করতে বলা হয়েছে।

অবশ্য নির্বাহী কমিটির ২৮৭তম সভায় সমন্বয়কের আপত্তির কারণে মেট্রোসিম সিমেন্টের এলটিআর থেকে মেয়াদিতে রূপান্তরিত ৩৫ কোটি টাকা নবায়ন আটকে দিয়েছে ব্যাংক। এ ছাড়া শামসুদ্দীন স্পিনিং মিলস লিমিটেডের বন্ধকি সম্পত্তিতে ব্যাংকের অধিকার প্রতিষ্ঠায় সময় বাড়ানো হয়নি।

সমন্বয়ক ও পর্যবেক্ষক রয়েছে যেসব ব্যাংকে : গত জুলাইয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর আব্দুর রউফ তালুকদার ১০টি ব্যাংককে ‘দুর্বল’ হিসেবে চিহ্নিত করে নিবিড় তদারকির উদ্যোগ নেন। ওয়ান ব্যাংক ছাড়াও ন্যাশনাল, পদ্মা, বাংলাদেশ কমার্স, এবি, ন্যাশনাল ব্যাংক অব পাকিস্তান, বেসিক ও বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের সঙ্গে সমঝোতা স্মারক সই করে ‘সমন্বয়ক’ নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে, বাংলাদেশ ব্যাংকের পর্যবেক্ষক রয়েছে সোনালী, জনতা, অগ্রণী, রূপালী, আইসিবি ইসলামিক, ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ ও ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *