নির্বাচন ঠেকানোর চক্রান্ত চলছে

বাংলাদেশ

নির্বাচন ঠেকানোর চক্রান্ত চলছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, বিএনপি নিজেরাও নির্বাচনে যাবে না, সুষ্ঠু নির্বাচনও হতে দেবে না।

বুধবার (১৫ মার্চ) ২৩, বঙ্গবন্ধু এভিনিউ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের যৌথসভায় এসব কথা বলেন তিনি।

বিএনপিকে হুঁশিয়ারি করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, আগুন নিয়ে খেলবেন না, তাহলে এই আগুনে নিজেরাই জ্বলে পুড়ে মরবেন। এখন শুনছি তারা নির্বাচনে আসবে না। নির্বাচনকে প্রশ্নবৃদ্ধ করার জন্য নানা অপকৌশলে লিপ্ত হচ্ছে।

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনকে কেন্দ্র করে হট্টগোল, ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ব্যালট ছিনতাইয়ের ঘটনায় বিএনপির সমালোচনা করে কাদের বলেন, আজ হাইকোর্টে কী হচ্ছে। ভোট চোরের রাজা বিএনপি। দেশের মানুষ এতো বোকা নয়, মানুষ এখন বুঝে গেছে। ভোট চুরির অপবাদ আওয়ামী লীগকে দেবেন না। আওয়ামী লীগ ভোট চুরি করে না, ভোট চোরের রাজা হলো বিএনপি। গতকাল বিএনপিপন্থি এক নেতা ভোটের ব্যালট চুরি করতে গিয়ে ধরা পড়েছে। গত ১০ বছর ধরে বিএনপি এই ভোট চুরির কাজটি করছে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রায় সব জেলায় আওয়ামী লীগের সম্মেলন শেষ হয়েছে। এর মধ্যে যেসব জেলার পূর্ণাঙ্গ কমিটি করা হয়নি সেটা করতে হবে। এজন্য নেতাকর্মীদের চাপ দিতে হবে।

বিএনপি দেশের মধ্যে আবারও আগুন সন্ত্রাস করার পাঁয়তারা করছে অভিযোগ করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপি নির্বাচনে আসবে না বরং তারা ২০১৩ ও ১৪ সালের মতো পরিস্থিতি করতে চায়। এজন্য তাদের মধ্যে ভেতরে ভেতরে কিছু আলোচনা হচ্ছে বলে আমরা শুনতে পাচ্ছি। বিএনপি আবার আগুন সন্ত্রাস ও ত্রাসের রাজত্ব করতে চায়। শেখ হাসিনার উন্নয়ন ও অর্জন মানুষের মন কাড়ছে। এজন্য বিএনপি চোরাগলি দিয়ে ক্ষমতায় আসতে চেষ্টা করছে।

তিনি আরো বলেন, আওয়ামী লীগ জনগণের সংগঠন ভয় দেখিয়ে লাভ নেই। সারাদেশের মানুষ আওয়ামী লীগের সঙ্গে আছে, তাই এমন কোনো শক্তি নেই যে ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগ হারাতে পারে। এজন্য দলের সকল নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থাকার আহবান জানান ।

নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থাকার আহবান জানিয়েছেন তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ থাকলে কোনো অপশক্তি মাথাচাড়া দিয়ে ধারাতে পারে না। আবারো নতুন করে শেখ হাসিনাকে হটানোর ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। এজন্য সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। ষড়যন্ত রুখে দিতে আওয়ামী লীগের দলীয় নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থাকার কোনো বিকল্প নেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *