মাগুরা-১ আসন-সাকিবের বিপক্ষে শক্ত কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী নেই

ভোটের ময়দান

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মাগুরা-১ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানের বিপক্ষে শক্ত কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী নেই বলে মনে করছেন ভোটাররা। বিশ্বসেরা এ অলরাউন্ডার নির্বাচনী মাঠে নতুন হলেও হাট-বাজারের চায়ের দোকানে ভোটারদের আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু।

মাগুরা পৌরসভা, সদর উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন ও শ্রীপুর উপজেলা নিয়ে জাতীয় সংসদের-৯১ মাগুরা-১ আসন। ১৯৯৬ সালের পর থেকে বিগত সব নির্বাচনে এ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা এমপি নির্বাচিত হয়ে আসছেন। 

সর্বশেষ ২০১৮ সালের নির্বাচনে এ আসন থেকে বিপুল ভোটে এমপি নির্বাচিত হন প্রধানমন্ত্রীর সাবেক সহকারী অ্যাডভোকেট সাইফুজ্জামান শিখর। এ নির্বাচনে তিনি ভোট পেয়েছিলেন ২ লাখ ৬৯ হাজার ৯৮। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী মনোয়ার হোসেন খান ভোট পেয়েছিলেন মাত্র ১৬ হাজার ৬৬০।

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে এ আসনের বর্তমান এমপি সাইফুজ্জামান শিখরের পরিবর্তে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের আধিনায়ক সাকিব আল হাসানকে। রাজনীতি ও নির্বাচনী মাঠে নতুন হলেও শাকিবের বিপরীতে শক্ত কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী নেই। এ আসন থেকে জাতীয় পার্টির সিরাজুস সায়েফিন সাঈফ, বাংলাদেশ কংগ্রেসের অ্যাডভোকেট কাজী রেজাউল হোসেন, বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট পার্টির (বিএনএফ) কেএম মোতাসিম বিল্লা ও তৃণমূল বিএনপির সনজয় কুমার রায় রনি। সাকিব আল হাসান ছাড়া অন্য সব প্রার্থীই ভোটাদের কাছে অপরিচিত।

শহরের মোল্লা পাড়ার বাসিন্দা দেলোয়ার হোসেন বলেন, নির্বাচনে বিএনপি অংশ না নেওয়ায় সাকিবের বিপক্ষে শক্ত বিএনপি নেই। এ আসনে আর যারা রয়েছেন তারা সবাই নতুন। এমনকি অনেক লোকজন তাদের চেনেনও না। এর ফলে সাকিবের বিজয় অনেকটা সময়ের ব্যাপার।

শহরের ভায়না এলাকার ভোটার মফিজুর রহমান বলেন, সাকিব আন্তর্জাতিক মানের একজন ক্রিকেটার। তিনি সবার কাছে পরিচিত। তাছাড়া বড় দল থেকে প্রার্থীও হয়েছেন। দলও তাকে নিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে নির্বাচনী মাঠে নেমেছেন। যে কারণে তার বিজয় অনেকটা নিশ্চিত বলা যায়।

শহরের চা দোকানি সেন্টু দত্ত বলেন, এ আসনে সাকিব বাদে যারা প্রার্থী হয়েছেন, তাদের নাম ও দলের নামও কখনো শুনিনি।

প্রসঙ্গত, মাগুরা-১ আসনে মোট ভোটার ৪ লাখ ৪৮৫ জন। এর মধ্যে পুরুষ ২ লাখ ৮৬২ জন ও নারী ভোটার ১ লাখ ৯৯ হাজার ৬২১ জন এবং তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার ২ জন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *