ভোটের সময় ‘ক্যামেরা ফোকাস’ করে রাখতে বললেন ইসি হাবিব

বাংলাদেশ

নির্বাচন কমিশনার (ইসি) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. আহসান হাবিব খান (অবঃ) বলেছেন, ‘এবারের নির্বাচন ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কাছে অনুকরণীয় হবে। আপনারা ভোটের সময় ‘ক্যামেরা ফোকাস’ করে রাখবেন। সাহসিকতার সঙ্গে তা প্রকাশ করবেন। যেখানেই অনিয়মের খবর পাওয়া যাবে সেখানেই ব্যাবস্থা নেওয়া হবে। ওই কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ বন্ধ করে দেওয়া হবে। প্রশাসনের কেউ এর সঙ্গে জড়িত থাকলে তার চাকরি থাকবে না। সকলে মিলে এমন একটি নির্বাচন করতে চাই যা দেশ-বিদেশসহ ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কাছে অনুকরণীয় হবে। সাংবাদিকদের বিষয়েও আমরা আইন করে দিয়েছি। তারা স্বাধীনভাবে সংবাদ সংগ্রহ করতে পারবেন। শুধুমাত্র সিল মারার গোপন বুথে কেউ প্রবেশ করতে পারবে না।’

তিনি বলেন, ‘যখন ভোট গণনা হবে, সেটাও ভিডিও করতে পারবেন সাংবাদিকরা। সাংবাদিকদের ক্যামেরা ভাঙচুর করলে ২ থেকে ৭ বছর জেলা দেওয়া হবে। আপনারা নির্ভয়ে সংবাদ পরিবেশন করবেন।’

মেহেরপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের হলরুমে আয়োজিত রিটার্নিং অফিসার প্রশাসন ও মেহেরপুর-চুয়াডাঙ্গা জেলার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের সঙ্গে মতবিনিময় শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন ইসি হাবিব।

মঙ্গলবার মেহেরপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের হলরুলে মেহেরপুরে জেলা প্রশাসক শামীম হাসানের সভাপতিত্বে চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক ড. কিসিঞ্জার চাকমা, মেহেরপুরের পুলিশ সুপার এস এম নাজমুল হক, চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার আর এম ফয়জুর রহমান, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ওয়ালীউল্লাহসহ র‌্যাব-পুলিশ ও সরকারি কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোছাঃ রনী খাতুন।

এ ছাড়া প্রার্থীদের মধ্যে মেহেরপুর-১ আসনের আওয়ামী লীগ মনোনীত সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী ফরহাদ হোসেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী অধ্যাপক আব্দুল মান্নান, মেহেরপুর-২ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আবু সালেহ মো. নাজমুল হক সাগর, স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. মকবুল হোসেন, চুয়াডাঙ্গা-১ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সোলাইমান হক জোয়াদ্দার সেলুন, স্বতন্ত্র প্রার্থী দিলীপ কুমার আগরওয়ালা, চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আলী আজগর টগর, স্বতন্ত্র প্রার্থী হাসেম আলীসহ মেহেরপুর ও চুয়াডাঙ্গা জেলার চারটি আসনের প্রার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *