আইসিসি আপত্তি জানালেও কামিন্সকে পাচ্ছেন খাজা 

ক্রিকেট ক্রীড়া জগত

অস্ট্রেলিয়া-পাকিস্তান টেস্ট সিরিজে উসমান খাজাকে নিয়ে নিয়মিত চলছে আলাপ আলোচনা। তবে সেটা মাঠের পারফরম্যান্সে নয়, মাঠের বাইরের ঘটনায়। যার কারণে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থার (আইসিসি) তিরস্কার পর্যন্ত শুনতে হয়েছে অস্ট্রেলিয়ার এই বাঁহাতি ব্যাটারকে। 

মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে (এমসিজি) আগামীকাল সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে মুখোমুখি হচ্ছে অস্ট্রেলিয়া ও পাকিস্তান। বক্সিং ডে টেস্টে কোনো লেখা সংবলিত কিছু নয়, জুতা ও ব্যাটে শান্তির প্রতীক পায়রা ও ‘01: UDHR’ লেখা লোগো ব্যবহার করতে চেয়েছিলেন তিনি। কেননা ‘01: UDHR’ আন্তর্জাতিক মানবাধিকার ঘোষণার রেফারেন্স হিসেবেই ব্যবহৃত হয়। এই জুতো পরে অনুশীলনও করেন অস্ট্রেলিয়ার বাঁহাতি ব্যাটার। আনুষ্ঠানিকভাবে আইসিসি এ ব্যাপারে এখনো কোনো বিবৃতি দেয়নি ঠিকই। তবে অস্ট্রেলিয়ার বেশ কিছু সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, তাঁকে (খাজা) অনুমতি দেওয়া হয়নি।

 এমন পরিকল্পনা (পায়রার লোগো ব্যবহার) কেন করেছেন তার ব্যাখ্যা গত শুক্রবার দিয়েছেন খাজা। সেখানে তিনি জানিয়েছেন, ইনস্টাগ্রামে প্রায়ই তিনি নিরীহ শিশুদের মারা যাওয়ার ভিডিও দেখতে পান। এটা যে গাজায় সহিংসতা নিয়ে, সেটা হয়তো বলার দরকার নেই। ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক প্যাট কামিন্স কথা বলেছেন খাজার প্রসঙ্গে। কামিন্স বলেন, ‘সত্যি বলতে এর ব্যবহার সম্পর্কে বিস্তারিত আমি কিছুই জানি না। তবে আমার মনে হচ্ছে, এটা সত্যিই একটা ঘুঘু। আমরা সত্যিই উসমান খাজাকে সমর্থন করছি। আমার মতে, সত্যিই সে (খাজা) যা বিশ্বাস করে, তার পক্ষে আছে এবং সে এটা সম্মানের সঙ্গেই করছে।’ 

ফিলিস্তিনিদের সমর্থন জানতে ‘স্বাধীনতা একটি মানবাধিকার, প্রতিটি জীবনের মূল্য সমান’ লেখা জুতা পরে পার্থে প্রথম টেস্টে খেলতে চেয়েছিলেন উসমান খাজা। কিন্তু তাঁর পরিকল্পনায় বাধা দেয় আইসিসি। রাজনৈতিক কারণ দেখিয়ে তাঁকে এই জুতা পরে খেলার অনুমতি দেয়নি আইসিসি।  পরিকল্পনা ভেস্তে যাওয়ায় সেই টেস্টে কালো আর্মব্যান্ড পরে খেলেছিলেন খাজা। প্রতিটি জীবনের মূল্য সমান এবং আমি মনে করি না। পায়রার ব্যাপারেও একই কথা বলব। তিনি হচ্ছেন উজি (খাজা)। তিনি সেক্ষেত্রে মাথা উঁচু রাখতেই পারেন। তবে সেখানে যে নিয়ম রয়েছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *