প্রোটিয়াদের হারিয়ে সিরিজ সমতায় শেষ করল ভারত

ক্রিকেট ক্রীড়া জগত

কেপটাউন টেস্টে দ্বিতীয় ইনিংসে দক্ষিণ আফ্রিকাকে মাত্র ১৭৬ রানে অলআউট সফরকারী ভারত। স্বাগতিকদের এত স্বল্প পুঁজির সিংহ ভাগই ছিলো প্রোটিয়া ওপেনার মার্করামের। ১০৩ বলের ইনিংসে ১৭টি চার আর ২টি ছক্কা হাঁকিয়ে করেন ১০৬ রান।

বৃহস্পতিবার (৪ জানুয়ারি) ভারতের সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় ৭৯ রানের। মাত্র ১২ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে ৮০ রান সংগ্রহ করে ৭ উইকেটে ম্যাচ জিতে সিরিজ ১-১ সমতায় ফিরেছে সফরকারীরা।

তবে আরো সহজ লক্ষ্য পেতে পারতো সফরকারীরা। ব্যক্তিগত ৭৩ রানে উইকেটরক্ষক লোকেশ রাহুলকে ক্যাচ দিয়েছিলেন মার্করাম। কিন্তু জাসপ্রিত বুমরাহর বলে সহজ সে ক্যাচ ফেলে দেন রাহুল। বুমরাহ দ্বিতীয় ইনিংসে ভারতের সেরা বোলার। এ ইনিংসে ৬১ রানে ৬টি উইকেট তুলে নেন এই পেসার। 

মাত্র ৭৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে ৭ উইকেটে পাওয়া ম্যাচে ভারতের হয়ে জয়সওয়াল ২৮, গিল ১০ এবং  কোহলি ১২ রানে আউট হন। রোহিত শর্মা ১৭ এবং  শ্রেয়াস আইয়ার অপরাজিত  ৪ রানে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েন। রাবাদা, বার্গার ও জানসেন ১ টি করে উইকেট পেয়েছেন।  এর আগে  টসে জিতে ব্যাটিং নিয়ে প্রথম দিনেই ধ্বংসস্তূপে পড়ে  দক্ষিণ আফ্রিকা। মোহাম্মদ সিরাজের আগুনে বোলিংয়ে ছারখার হয়ে যায় স্বাগতিকেরা। দিনের প্রথম সেশনেই গুটিয়ে যায় মাত্র ৫৫ রানে গুটিয়ে যায় প্রোটিয়ারা।  সিরাজ নেন ১৫ রানে ৬ উইকেট। ক্যারিয়ারে সিরাজের এখন এটিই সেরা বোলিং ফিগার। জবাবে ব্যাট করতে নেমে রাবাদার প্রথম শিকার হন  যশস্বী জয়সওয়াল। শূন্য রানে বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফেরেন এই ওপেনার। তখন ভারতের রান ১৭।

এরপর অধিনায়ক রোহিত শর্মা ও শুভমান গিল প্রতিরোধ গড়ে তোলেন। ওয়ানডে স্টাইলে ব্যাট করা রোহিতকে ৩৯ রানে ফেরান বার্গার। দলের সংগ্রহ তখন ৭২। এরপর পরপর বার্গারের শিকার হন গিল এবং শ্রেয়াস আইয়ার। জানসেনের কাছে ক্যাচ দিয়ে ব্যক্তিগত ৩৬ রানে আউট হন গিল। আর শ্রেয়াস আইয়ার রানের খাতায় কিছু যোগ না করেই ফিরে আসেন। ১৫৩ রানের সময় ভারতীয় ব্যাটিংয়ে যেন ঝড় নামে।  ৪ উইকেট থেকে কোন রান না যোগ করেই ৬ জন ব্যাটার সাজঘরে ফেরেন।  প্রথম ইনিংসে ১৫ রানে ৬ উইকেট এবং দ্বিতীয় ইনিংসে ৩১ রানে ১ উইকেট তুলে নেয়ায় ম্যাচ সেরা হয়েছেন মোহাম্মদ সিরাজ।

আজ দ্বিতীয় দিনে চলে আসা-যাওয়ার মিছিলে ব্যস্ত ছিল প্রোটিয়া ব্যাটাররা। তবে একপ্রান্ত আগলে লড়ছিলেন মার্করাম। তিনি ৯৯ বলে ১৬টি চার ও ২ ছক্কায় টেস্ট ক্যারিয়ারের সপ্তম সেঞ্চুরি তুলে নেন। দলীয় ১৬২ রানের মাথায় তিনি আউট হন। ১০৩ বল খেলে ১৭টি চার ও ২ ছক্কায় ১০৬ রান আসে তার ব্যাট থেকে। এরপর ১৭৬ রানের মধ্যে গুটিয়ে যায় স্বাগতিকরা। দলের সবাই মিলে করে ৭০ রান। আর মার্করাম একাই করেন বাকি ১০৬ রান।

বল হাতে জাসপ্রিত বুমরাহ ১৩.৫ ওভার বল করে ৬১ রান দিয়ে নেন ৬টি উইকেট। এছাড়া মুকেশ কুমার ২টি এবং মোহাম্মদ সিরাজ ও প্রসিদ্ধ কৃষ্ণা ১টি করে উইকেট নেন।১৯৯২ সাল থেকে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে টেস্ট সিরিজ খেলছে ভারত। এখন পর্যন্ত একবারও সিরিজ জিততে পারেনি টিম ইন্ডিয়া। প্রথম টেস্টে হেরে এবারও সেই স্বপ্ন ধুলিসাৎ হয়েছে তাদের। আজ কেপটাউন টেস্টে ৭ উইকেটে জিতে রোহিত বাহিনী ১-১ ব্যবধানে সিরিজ শেষ করেছে। এর আগে ২০১০ সালের মত সিরিজ সমতায় শেষ করার সুযোগ রয়েছে ভারতের। ঐ সফরে সাবেক অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বে তিন ম্যাচের সিরিজ ১-১ সমতায় শেষ করেছিলো টিম ইন্ডিয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *